নায়িকা রুহি সাজেকে গিয়ে মুগ্ধ

কেটে যাচ্ছে করোনাকাল, ভ্যাকসিন ক্রমেই বিশ্বের বুক থেকে করোনাকে বিদায় জানাচ্ছে। সারাবিশ্বের মতো বাংলাদেশ দুই দফায় ধাপে ধাপে কঠোর বিধি-নিষেধের মধ্য দিয়ে গেছে। এ সময় মানুষের মন অনেকটা স্থিমিত হয়ে ছিল, গভীর সবুজ থেকে একটু বিশুদ্ধ বাতাস নেওয়ার জন্য উদগ্রীব ছিল। সেই সুযোগ তৈরি হয়েছে।

বিধি-নিষেধ উঠে গেছে। দেশের সকল বিধি-নিষেধ উঠে যাচ্ছে ধাপে ধাপে, স্কুল কলেজ, ইউনিভার্সিটি খোলার অপেক্ষায়। এর মধ্যে পর্যটন এলাকাগুলো থেকে বিধি-নিষেধ উঠে গিয়েছে। মানুষজন এখন একটু বিশুদ্ধ অক্সিজেন নেওয়ার জন্য বনে-জঙ্গলে, পাহাড়ে-পর্বতে যাচ্ছে।

সকলের মতো শোবিজ অঙ্গনের অনেককেই এখন এখানে সেখানে, দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ঘোরাঘুরি করতে দেখা যাচ্ছে। অবশ্যই তাদের সোশ্যাল হ্যান্ডেল মারফত এ তথ্য জানা যাচ্ছে।

তেমনই চিত্রনায়িকা রুহিকে দেখা গেল বাংলাদেশের পার্বত্য জেলার পাহাড়ি এলাকায়। দেশের পূর্ব দক্ষিণাঞ্চলের সীমান্তবর্তী এলাকা সাজেক। একটি ইউনিয়নের নাম সাজেক। রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলায় অবস্থিত এই এই ইউনিয়ন যেন সৌন্দর্যের আধার।

ধরুন আপনি হেঁটে যাচ্ছেন, মেঘ এসে আপনাকে এলোমেলো করে দিল। ঘরে বসে আছেন, জানালা দিয়ে হাত বাড়ালেই মেঘ। মেঘে মাটিতে মাখামাখি। পাহাড়ের এই সৌন্দর্য দেখতে ছুটে যান দর্শনার্থীরা।

গত বছরেই অভিনেতা মোশাররফ করিম ও তার স্ত্রী রোবেনা জুঁই সাজেকে নিজেদের বিবাহবার্ষিকী পালন করলেন। দুদিন আগেই চিত্রনায়ক সিয়াম ও তার স্ত্রীকে দেখা গেল অবকাশযাপনে সাজেকে।

অবশ্য সিয়াম সেভাবে জানান দেননি। এবার দেখা গেল রুহিকে। রুহি রীতিমতো সাজেকে মুগ্ধ। শুধু তাই নয়, মেঘের ভেতর হারিয়ে ছবি দিয়ে নিজেকে মেঘকন্যা হিসেবেও দাবি করে ফেলেছেন।

বোঝা যাচ্ছে বেশ উপভোগ করছেন সময়টা। অবশ্য দীর্ঘসময় পর এই উন্মুক্ত, প্রতীক্ষিত সময়টা তো উপভোগ করতেই হবে। তাই দিলরুবা ইসলাম রুহি উপভোগ করছেন। একটি রিসোর্টের বারান্দা থেকে নিজের বেশ কয়েকটি ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, মেঘকন্যা।