পাঞ্জশির উপত্যকা ‘অপরাজিত’

আফগাস্তিানের রাজধানী কাবুল থেকে ৪৮ কিলোমিটার দূরে পাঞ্জশির উপত্যকা।এলাকাটি উঁচু-নিচু পাহাড়ি ও দুর্গম হওয়ায় অনেকটা সুবিধাজন স্থানে রয়েছে তালেবান প্রতিরোধ গোষ্ঠী।বিবিসি বলছে, উপত্যকাটিতে ঢোকার রাস্তা খুবই সরু।সেখানে কয়েক হাজার তালেবান বিরোধী যোদ্ধা অবস্থান করছে।

ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যমটি বলছে, আফগানিস্তানের সাম্প্রতিক উত্তাল ইতিহাসে নাটকীয় ও চাপিয়ে দেওয়া পাঞ্জশির উপত্যকাটি প্রথমবারের মতো তালেবান মোকাবিলা করছে না। ১৯৮০ এর দশকে সোভিয়েত বাহিনীর বিরুদ্ধে এবং ৯০ এর দশকে তালেবানদের বিরুদ্ধে এটি একটি শক্ত ঘাঁটি ছিল।

ন্যাশনাল রেসিসটেন্স ফ্রন্ট অব আফগানিস্তান (এনআরএফ) সম্প্রতি বিশ্বকে জানিয়ে দিয়েছে তারা এ উপত্যকাটিতে শক্তিশালী।

এনআরএফের পররাষ্ট্র শাখার প্রধান আলি নাজারি বিবিসিকে বলেন, রেড আর্মি (সোভিয়েত) আমাদের পরাজিত করতে পারেনি এবং ২৫ বছর আগে তালেবান এ উপত্যকাটি দখল করার চেষ্টা করেছিল এবং তারা ব্যর্থ হয়েছে।

প্রসঙ্গত, এখনো এই অঞ্চলটি এনআরএফের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এই গোষ্ঠীটি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন আফগান প্রতিরোধের নায়ক বলে পরিচিত আহমদ শাহ মাসুদের ছেলে আহমদ মাসুদ।

আহমদ শাহ মাসুদ ছিলেন একজন শক্তিশালী গেরিলা কমান্ডার। যিনি তৎকালীন সোভিয়েত ইউনিয়নের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ যুদ্ধে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। এরপর তিনি ১৯৯০ -এর দশকে বিদ্রোহী জঙ্গিদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আফগান সামরিক বাহিনীর নেতৃত্ব দিয়েছিলেন।

তালেবান নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার পরও ২০০১ সালে তাকে হত্যার আগ পর্যন্ত তালেবান শাসনের বিরুদ্ধে তিনিই ছিলেন প্রধান বিরোধী কমান্ডার।