যমুনার পানি বৃদ্ধিতে পানিবন্দি ৫০ হাজার মানুষ

বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। গত কয়েক দিনের বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা ঢলে যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে।

বুধবার বিকাল ৩টায় পানি বিপৎসীমার ৫৬ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। নদীতে পানি বৃদ্ধি হওয়ায় নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে।

বসতবাড়ি, ফসলি জমি ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বন্যার পানি প্রবেশ করেছে। বন্যার পানি প্রবেশ করায় বেশ কিছু পরিবারের সদস্যরা তাদের গৃহস্থালি সামগ্রী ও গবাদিপশু নিয়ে পার্শ্ববর্তী উঁচু জায়গা ও বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধে আশ্রয় নিতে শুরু করেছেন।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মাহবুবর রহমান ও

স্থানীয় সূত্র জানায়,

  • সারিয়াকান্দির মথুরাপাড়া পয়েন্টে

বুধবার বিকাল ৩টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় যমুনা নদীর পানি

  • ১০ সেন্টিমিটার বেড়ে বিপৎসীমার ৫৬ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়।
  • উপজেলা কৃষি অফিস জানায়, বন্যার পানিতে রোপা আমন ৭৫ হেক্টর,
  • বীজতলা ১০ হেক্টর,
  • সবজি নয় হেক্টর,
  • মাসকালাই ১৫ হেক্টরসহ
  • মোট ১০৯ হেক্টর জমির ফসল নিমজ্জিত হয়েছে।

উপজেলা শিক্ষা অফিস জানায়, উপজেলার ২৩টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বন্যার পানি প্রবেশ করেছে।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম জানান,

  • উপজেলার সারিয়াকান্দি সদর,
  • হাটশেরপুর,
  • কাজলা,
  • চালুয়াবাড়ি,
  • কর্ণিবাড়ী,
  • বোহাইল,
  • কুতুবপুর,
  • চন্দনবাইশা ও
  • কামালপুর ইউনিয়নের ৬৮টি গ্রামের ৫০ হাজার ৮০০ মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

পানিবন্দি মানুষের মাঝে ইতোমধ্যে ত্রাণ হিসেবে ৪৬ মেট্রিক টন চল বিতরণ করা হয়েছে। আরও বিতরণ করা হবে।